সাতটি নতুন বাসের সূচনা পরিবহনমন্ত্রীর ইসলামপুরের ঝুলিতে শুন্য

দীপঙ্কর দে (টি.এন.আই ইসলামপুর) । টি.এন.আই সম্পাদনা শিলিগুড়ি

বাংলাডেস্ক, টি.এন.আই, ইসলামপুর, ৪ঠা অক্টোবর, ২০১৮: বৃহস্পতিবার ইসলামপুর বাস টার্মিনাসে উত্তরবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহন সংস্থার সাতটি নতুন বাসের উদ্বোধন করেন পরিবহনমন্ত্রী তথা উত্তর ও দক্ষিণ দিনাজপুর ও মালদা তিন জেলার পর্যবেক্ষক শুভেন্দু অধিকারী। উত্তরবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহন সংস্থার সূত্রে জানা গিয়েছে, সাতটি বাসের মধ্যে তিনটি শিলিগুড়ি থেকে কোলকাতা, দুটি রায়গঞ্জ থেকে কোলকাতা এবং বাকি দুটি বালুরঘাট থেকে কোলকাতা রুটে চলবে। এদিন ওই অনুষ্ঠানে বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্যে ছিল রাজ্যের যুবক যুবতীদের পরিবহন ব্যবসায় স্বনিযুক্তি ও উপার্জনের লক্ষে গতিধারা প্রকল্পের অনুমোদনপত্র প্রদান,পথ নিরাপত্তা ও সুরক্ষা সুনিশ্চিত করণের লক্ষে “সেফ ড্রাইভ সেফ লাইফ”কর্মসূচিতে হেলমেট প্রদান,উত্তরবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহন সংস্থার ইসলামপুর ডিপোর পুনর্নবীকরনের পর ব্যবহারের শুভারম্ভ, এছাড়াও বনধে ক্ষতিগ্রস্ত বাস গুলির ক্ষতিপূরনের চেক প্রদান, বনধের দিন বাস পরিষেবা সচল রাখতে গিয়ে আক্রান্ত ড্রাইভার ও কন্ডাক্টরদের জন্য স্বীকৃতি ও অর্থ প্রদান করা হয়। প্রশ্ন উঠছে, একটিও বাস যদি ইসলামপুর না পায় তাহলে তড়িঘড়ি ইসলামপুর থেকে এই উদ্বোধন কেন? এক সপ্তাহের মধ্যে দুইবার পরিবহনমন্ত্রীর সভার কি প্রয়োজন হয়ে পড়লো ? উল্লেখ্য, ইসলামপুর ডিপো থেকে গত প্রায় পাঁচ বছর হতে চললো ইসলামপুর-কোলকাতা রুটের বাস বন্ধ হয়ে গিয়েছে। আগে প্রতিদিন দুটি বাস ইসলামপুর-কোলকাতা রুটে চলতো। অথচ পরিবহন দপ্তর সূত্রেই জানা গিয়েছে, বিশেষ একটি সম্প্রদায়ের বিভিন্ন উৎসবে ইসলামপুর-কোলকাতা রুটে স্পেশাল বাস চালানো হয়। তাহলে দারিভিটকাণ্ডে দিশা খুঁজে না পাওয়া শাসকদলের ড্যামেজ কন্ট্রোল করতেই কি উন্নয়নের সভা ? দারিভিটকাণ্ডে ব্যাকফুটে থাকা তৃণমূল বিজেপির বনধের বিরোধিতা করতে রাস্তায় নেমে ব্যবসায়ীদের দোকানে হামলার ঘটনায় বিধস্ত শাসকদল ইসলামপুরকে একটি বাস না দিয়েও ভাওতাবাজি উন্নয়নের সভা করে ড্যামেজ কন্ট্রোল করতে চাইছে বলে মত বিভিন্ন মহলের। যদিও স্থানীয় বিধায়কের দাবি মেনে পরিবহনমন্ত্রী ইসলামপুর থেকে রায়গঞ্জ বাস সার্ভিস দুই দিনের মধ্যেই চালু করার নির্দেশ দেন সংস্থার ম্যানেজিং ডিরেক্টরকে। এছাড়াও ইসলামপুর থেকে কলকাতাগামী বায়ো টয়লেটের সুবিধা সহ একটি এসি ভলবো বাস চালু করার বিষয়ে প্রতিশ্রুতি দেন। রাজ্যের পরিবহন ও পরিবেশ মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী বলেন, দাড়িভিটে মৃতর পরিবারের সদস্যরা যদি সরকারের সাথে দেখা করতে চান ,যেদিন তারা মনে করবেন,একটা খবর দিলেই সেখানে পৌঁছে যাবো সবাই।শুধু যেতে যত টুকু সময় লাগে। যদিও এবিষয়ে এলাকার মন্ত্রী গোলাম রব্বানী এবং বিধায়ক কানাইলাল আগরওয়াল তাদের সঙ্গে সবসময় যোগাযোগ রেখে চলেছেন। অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উত্তরবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহন সংস্থার ম্যানেজিং ডিরেক্টর সুবোধ চন্দ্র রায়, সংস্থার চেয়ারম্যান তথা বিধায়ক মিহির গোস্বামী,উত্তর দিনাজপির জেলা শাসক অরবিন্দ কুমার মিনা,জেলা পুলিশ সুপার সুমিত কুমার, উত্তর দিনাজপুর জেলা পরিষদের সভাধিপতি কবিতা বর্মন,বিধায়ক ও ইসলামপুর পৌরসভার চেয়ারম্যান কানাইলাল আগরওয়াল, করণদীঘির বিধায়ক তথা উত্তরবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহন সংস্থার ভাইস চেয়ারম্যান মনোদেব সিনহা,ইটাহারের বিধায়ক অমল আচার্য,চোপড়ার বিধায়ক হামিদুল রহমান,ডালখোলা পৌর সভার চেয়ারম্যান সুভাষ গোস্বামী,রায়গঞ্জ পৌরসভার চেয়ারম্যান সন্দীপ বিশ্বাস ,জেলা পরিষদের সহ সভাধিপতি ফারহাত বানু প্রমুখ।

ছবি: দীপঙ্কর দে (টি.এন.আই)

Facebook Comments
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!