জন বার্লার বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ খন্ডন করল বিজেপি

বাংলাডেস্ক, টি.এন.আই, বানারহাট, ৩রা অগাস্ট, ২০২১: ডুয়ার্সের নির্যাতিতা আদিবাসী যুবতীর সাংবাদিক সন্মেলন করে ঘটনার সাথে জন বার্লার যোগ অস্বীকার করার পর বিজেপির পক্ষ থেকেও জন বার্লার বিরুদ্ধে ওঠা সমস্ত অভিযোগ খন্ডন করা হল। সোমবার বিকেলে বানারহাটের চামুর্চী মোড়ে জন বার্লার বিতর্কিত ভবনে বিজেপির স্থানীয় নেতৃত্ব সাংবাদিক সন্মেলন করে এই কথা জানান।

ডুয়ার্সের নির্যাতিতা আদিবাসী যুবতী রবিবার রাতে সাংবাদিক সন্মেলন করে তার প্রাথমিক অভিযোগ থেকে অবস্থান বদল করেন। এর আগে তিনি পুলিশের কাছে লিখিত অভিযোগ করে বানারহাটের প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে যৌন নিগ্রহের অভিযোগ আনার পাশাপাশি এই ঘটনায় সাহায্য চাইতে গিয়ে সাংসদ জন বার্লা ও তার তিনি সহযোগীর বিরুদ্ধে আর্থিক প্রতারণার অভিযোগ এনেছিলেন। রবিবার রাতে তার নিজের বাড়িতে সাংবাদিকদের ডেকে তিনি জানান আর্থিক লেনদেনের সাথে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জন বার্লার কোনও যোগ নেই। তিনি সাংবাদিকদের সামনে অভিযোগ করে বলেন তার সাথে আর্থিক প্রতারণা ও প্রাণে মারার হুমকি দিয়েছিলেন সাংসদের তৎকালীন আপ্তসহায়ক অদীপ ভুজেল এবং তার সহযোগী সঞ্জয় চৌধুরী। একই সাথে অভিযোগ পত্রে নাম থাকা সন্তোষ প্রসাদেরও এই ঘটনায় বিশেষ কোনও ভূমিকা নেই বলেই  তিনি জানিয়েছিলেন। এর পরই সোমবার বিকেলে বিজেপির পক্ষ থেকে বানারহাটে সাংবাদিক সন্মেলন করা হয়।

এদিন চা শ্রমিক সংগঠন বি.টি.ডব্লিউ.ইউ জেনারেল সেক্রেটারি পারশনাথ বরাইক বলেন আদিবাসী সম্প্রদায় থেকে উঠে আসা এক শ্রমিকের কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হওয়ার পর থেকেই রাজ্যের ক্ষমতাসীন দলের নেতৃত্ব রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভাবে ষড়যন্ত্র ও চক্রান্ত করে তাকে কালিমালিপ্ত করার চেষ্টা করছে। নির্যাতিতা মহিলা নিজেই পরিস্কার ভাবে জানিয়ে দিয়েছেন- ঘটনার সাথে জন বার্লার কোনও যোগ নেই। স্থানীয় বিজেপি নেতা জয়রাজ বিশ্বকর্মা বলেন শাসক দলের চক্রান্তের বিরুদ্ধে তারা উত্তরবঙ্গব্যাপী পথে নামবেন। পাশাপাশি এই মামলায় পুলিশের অতিসক্রিয়তা এবং ডুয়ার্সে ঘটে যাওয়া এর চেয়েও গুরুতর কিছু ঘটনায় পুলিশের নিষ্ক্রিয়তার বিষয়েও প্রশ্ন তোলেন তারা।

ছবি: সংবাদচিত্র

Facebook Comments
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!