লোডশেডিং হলে মোমবাতিতেই ভরসা ময়নাগুরি গ্রামীন হাসপাতালে

সোমনাথ চক্রবর্তী (টী.এন.আই ময়নাগুড়ি) । টি.এন.আই সম্পাদনা শিলিগুড়ি

বাংলাডেস্ক, টী.এন.আই ময়নাগুরি ৬ই এপ্রিল, ২০১৮: গ্রামীন হাসপাতালের বহির্বিভাগে প্রতিদিন প্রায় ৬০০ রোগী চিকিৎসার জন্য আসেন। এই হাসপাতালেই প্রতিদিন গড়ে প্রায় ১০টি শিশুর জন্ম হয়। ময়নাগুরি গ্রামীন হাসপাতাল স্বাভাবিক প্রসবে জলপাইগুড়ি জেলায় প্রথম স্থান অধিকার করেছে।আর এই হাসপাতালেই বিদ্যুৎ চলে গেলে রোগীদের চলছে মোম জ্বালিয়ে চিকিৎসা। জেনারেটর ও ইনভার্টার খারাপ হওয়ায় এই সমষ্যা দেখা মিললো। হাসপাতালে আসা রোগী ও তাদের আত্মীয়পরিজন জানান লোডশেডিং হলে গরমে দম বন্ধ হবার উপক্রম হয়।  কেউ বলে বয়স্করা অন্ধকারে কিছু দেখতে পারে না বিছানা থেকে পড়ে জাবার ও ভয় আছে। রাতে লোডশেডিং হলে আরো বেশী সমস্যা দেখা দেয় বলে জানান অনেকেই। ময়নাগুরি ব্লক স্বাস্থ্য আধিকারিক ডঃ লাকি দেওয়ান জানান খারাপ জেনারেটারটি মারামত করা হচ্ছে। ইনভার্টার ও খারাপ আছে। আমরা নতুন ইনভার্টার আনার উদ্দ্যোগ নিয়েছি।কিছু সমষ্যা হচ্ছে ঠিক কিন্তু তা মিটে যাবে।

ছবিঃ সোমনাথ চক্রবর্তী (টি.এন.আই)

Facebook Comments
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!