রায়গঞ্জ সংশোধনাগারে সাজাপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মীর মৃত্যুতে চাঞ্চল্য

পার্থ চ্যাটার্জি (টি.এন.আই রায়গঞ্জ) । টি.এন.আই সম্পাদনা শিলিগুড়ি

বাংলাডেস্ক, টি.এন.আই, রায়গঞ্জ, ৯ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৯: গতকাল রাতে রায়গঞ্জে এক সাজা প্রাপ্ত পুলিশ কর্মীর মৃত্যুকে কেন্দ্র করে শহরে চাঞ্চল্য ছড়ায়। মৃত্যু সংশোধনাগার হওয়াতে পরিস্থিতি আরও ঘোরাল হয়ে ওঠে৷ পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, মৃত পুলিশ কর্মীর, জিনি একজন কনস্টেবল ছিলেন তার নাম অনিল মার্ডি (৩৯)। তার বাড়ি হেমতাবাদ থানার ভোগ্রামে৷ রায়গঞ্জ আদালতের বিচারক গত ৬ তারিখ অনিল মার্ডিকে এক মাসের সাজা ঘোষনা করেন। মার্ডির অপরাধ, তার স্ত্রী মাসিলা হাঁসদাকে তিনি কোন খোরপোস দিতেন না। পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সেইদিন রাতে অর্থাৎ ৬ই ফেব্রুয়ারি, রায়গঞ্জ সংশোধনাগারের মধ্যেই অসুস্থ হয়ে পরেন অনিল মার্ডি৷ কোন বিলম্ব না করেই অনিল মার্ডিকে রায়গঞ্জ সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের সিসিইউতে ভর্তি করে দেওয়া হয় পুলিশের পক্ষ থেকে। তবে শেষ রক্ষা আর হয়নি, গত কাল রাতে গভীর রাতে আবার শারীরিক অবস্থার অবনতি শুরু হয় অনিল মার্ডির। এর পরেই তার মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে হাসপাতালে আসেন তার স্ত্রী মাসিলা হাঁসদা। তিনি টি.এন.আই কে জানান, তার স্বামীর সাথে বিবাহিত জীবন সুখের ছিলনা। সেই কারনে ২০১৪ সালে স্বামীর বিরূদ্ধে খোরপোষের মামলা করেন তিনি। বিগত দিন গুলিতে স্বামীর থেকে আলাদা ছিলেন তিনি। ছয় তারিখ তার স্বামীকে এক মাসের জেল হেপাজতের নির্দেশ দেন বিচারক। শুক্রবার থানা থেকে ফোন করে তার স্বামীর মৃত্যুর খবর দেওয়া হয়৷ তবে কিভাবে অনিল মার্ডির মৃত্যু হলো সেটা এখনো জানায়নি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

সংবাদচিত্র

Facebook Comments
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!