গজলডোবায় জল বাড়ায় তিস্তার ওপর বিশেষ নজর

সুপ্রিয় বসাক (টী.এন.আই ধুপগুড়ি) । টি.এন.আই সম্পাদনা শিলিগুড়ি

বাংলাডেস্ক, টী.এন.আই, গজলডোবা, ৩০শে জুন, ২০১৮: সিকিম পাহাড় থেকে নেমে আসা জল এবং সমতলের বৃষ্টিতে জল বাড়তে শুরু করে ডুয়ার্স সুন্দরী তিস্তার।জল বাড়ায় জেলা সেচ দফতরের কপালে চিন্তার ভাঁজ।শনিবার সন্ধ্যা রাতে তিস্তায় জলের পরিমান দেখে দোমহনী থেকে বাংলাদেশ সীমান্ত পর্যন্ত তিস্তার অসংরক্ষিত এলাকায় জারি করা হয়েছিল হলুদ সংকেত।তবে মাঝ রাতে পরিস্থিতি খানিকটা স্বাভাবিকের দিকে আসলে তা তুলে নেওয়া হয়।এদিকে জানা যায় রবিবার সকাল থেকে তিস্তা ব্যারেজের ৪৫ টি লক গেটের মধ্যে ১৩ টি গেট খোলা রয়েছে এবং প্রতি ঘন্টায় ১২৪৬.৩০ কিউমেক জল ছাড়া হচ্ছে। অন্যদিকে সমতলের বৃষ্টি এবং তিস্তার জলস্ফীতির কারনে মাল মহকুমার সাঙ্গপাড়া, চাপাডাঙ্গা, পশ্চিম সাঙ্গ পাড়া, পন্ডিত পাড়া এলাকায়। সবমিলিয়ে প্রায় ৯০ টি বাড়ি জলমগ্ন।কঠিন অবস্থার মুখে দাঁড়িয়ে এলাকার মানুষেরা। এবিষয়ে মাল মহকুমা সেচ আধিকারিক কেশব রায় বলেন, তিস্তার উপর বিশেষ নজর রাখা হচ্ছে।তবে যে সমস্ত এলাকায় জল রয়েছে সেগুলি নীচু এলাকা। ধীরে ধীরে জল কমছে। তবে জানা গিয়েছে, এই প্রথম বার জলপাইগুড়িতে তিস্তায় হলুদ সর্তকতা জারি করা হল। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকেও এবিষয়ে জানানো হয়েছে, বৃষ্টি পাত এবং পাহাড় থেকে ছাড়া জলের উপর নজর রাখা হচ্ছে। পাশাপাশি জেলা প্রশাসন সব দিক থেকে প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছে।

ছবি: সুপ্রিয় বসাক (টি.এন.আই)

Facebook Comments
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!