দুর্গা পুজোর আগেই হাওড়া শহরে টোটোর বদলে ই-রিক্সা

সুরজিত মল্লিক (টী.এন.আই হাওড়া) । টি.এন.আই সম্পাদনা শিলিগুড়ি

বাংলাডেস্ক, টী.এন.আই হাওড়া ৩১শে মার্চ ২০১৮: হাওড়া শহরের যানজটের অন্যতম একটি কারণ হল টোটো পরিষেবা। এই মুহূর্তে হাওড়া শহরে প্রায় ১২ হাজার টোটো চলাচল করছে। নিদিষ্ট কোনো রুট না থাকায়, এর মধ্যে বেশিরভাগ টোটোই বেআইনি ভাবে বিভিন্ন রুটে দাপটের সাথে চলাচল করছে। শহরের রাস্তা ছাড়াও এই টোটোর কারণে যানজটের হাত থেকে রেহাই মেলেনি ওলি গলিরও। নিত্যদিন যানজটের কবলে পরে বিভিন্ন সমস্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে নিত্যযাত্রীদের, ক্ষোভ ও বাড়ছে। এবার এই দৌরাত্ব রুখতে বদ্ধ পরিকর পশ্চিমবঙ্গ পরিবহন দপ্তর। পশ্চিমবঙ্গ পরিবহন দপ্তরের স্মারক নং 2367(42)-wt/3m-56/2013 তাং ২৮/০৭/২০১৬ অনুয়ায়ী রাজ্যে টোটো তৈরি করা, আমদানি করা, একত্রিকরণ করা বেআইনি বলে ঘোষিত হয়েছে।  সরকারি নির্দেশ অনুযায়ী বতর্মানে রাস্তায় চলা টোটোগুলি চিহ্নিত করে, রেজিস্ট্রেসন ও লাইসেন্স প্রদানক্রমে ভারত সরকারের এ.আই.এস অ্যাপ্রুভড  ই-রিক্সাতে পযায়ক্রমে ই-রিক্সাতে পযায়ক্রমে রূপান্তরিত করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।  ইতিমধ্যে হাওড়া পুলিশ কমিশনারেট ও হাওড়া পৌরনিগম থেকে দরখাস্তের ভিত্তিতে টোটো গুলিকে বিশেষ চিহ্নিতকরন নম্বর প্রদান করা হয়েছে। পরবর্তী পযায়ে হাওড়া পুলিশ কমিশনারেটের সাথে আলোচনার মাধ্যমে ৮০টি রুটে কত সংখ্যক ই-রিক্সা চলতে পারে তা চিহ্নিত করন করা হয়েছে। জেলার আর.টি.এ বোর্ড সেই রুট গুলি ও সংখ্যা অনুমোদন দিয়েছে। সূত্রের খবর, ইতিমধ্যে বেশ কয়েকটি কোম্পানিকে হাওড়া জেলায় এ.আই.এস অ্যাপ্রুভড  ই-রিক্সা ব্রিক্রির জন্যে ট্রেড সার্টিফিকেট দেওয়া হয়েছে। যে সকল টোটো মালিক হাওড়া পুলিশ কমিশনারেট থেকে বা হাওড়া পৌরনিগম থেকে বিশেষ নম্বর পেয়েছেন, তারা চিহ্নিত করা ৮০টি রুটে তাদের বতমান টোটোকে নষ্ট করে অনুমোদিত ডিলারের কাছ থেকে ই-রিক্সা কিনে রেজিস্টেশন ও লাইসেন্স পাওয়ার জন্য আবেদন করতে পারেন। নিদিষ্ট যোগ্যতা ও পদ্ধতির ভিত্তিতে রেজিষ্টেশন ও লাইসেন্স মিলবে। দূগা পুজোর আগেই হাওড়া শহরের বিভিন্ন রুটে ই-রিক্সা চলাচল করতে দেখা যাবে। শহরবাসী এই ই-রিক্সায় চড়তে পারবে রুট অনুযায়ী। এতদিন বেআইনি টোটো চলাচলের জন্যে রাস্তায়, যে যানযটের তৈরি হচ্ছিল। ই-রিক্সার নিদিষ্ট রুট থাকায়, রাস্তায় যানযট অনেকটাই নিয়ন্তনে থাকবে বলে আশাবাদী প্রশাসন|

ছবিঃ সুরজিত মল্লিক (টি.এন.আই)

Facebook Comments
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!