বাৎসরিক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজন করল কুশমন্ডির নাহিট উচ্চবিদ্যালয়

দীপঙ্কর মিত্র (টী.এন.আই বালুরঘাট) । টি.এন.আই সম্পাদনা শিলিগুড়ি

বাংলাডেস্ক, টী.এন.আই কুশমন্ডি ৩০শে জানুয়ারি ২০১৮: প্রজ্জলিত হোক জ্ঞানের প্রদীপ, দূরীভূত হোক অজ্ঞানতার অন্ধকার- এই অঙ্গিকারকে সামনে রেখে মঙ্গলবার প্রবল উৎসাহ এবং উদ্দিপনার মধ্যে দিয়ে বাৎসরিক সাংস্কৃতিক ও পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করলো নাহিট উচ্চ-বিদ্যালয়ে। কুশমন্ডি ব্লকের অন্তর্গত কুশমন্ডি পূর্ব চক্রের নাহিট উচ্চ-বিদ্যালয়ে এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন দক্ষিন দিনাজপুর জেলা পরিষদের পুর্ত কর্মাধ্যক্ষা শ্রীমতী সুনন্দা বিশ্বাস, অ্যাসিস্ট্যান্ট ইন্সপেক্টর অফ স্কুলস (এ.আই) শ্রী যোতিন্দ্রনাথ বর্মন, বুনিয়াদপুর পৌরসভার চেয়ারম্যান শ্রী অখিল চন্দ্র বর্মন, কুশমন্ডি পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি শ্রী মিঠু জোয়াদ্দার, কুশমন্ডি ব্লকের সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারীক শ্রী অমুল্য চন্দন সরকার, কুশমন্ডি পূর্ব চক্রের অবর বিদ্যালয় পরিদর্শক সাফিয়ার রহমান, ব্লক স্বাস্থ্য আধিকারীক শ্রী অমিত দাস, নাহিট উচ্চ-বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক শ্রী শুভজিৎ মিশ্র, বিদ্যালয়ের পরিচালন সমিতির সভাপতি সিরাজুল ইসলাম সহ অন্যান্য বিশিষ্ট জনেরা। দুপুর ১টা ৩০মিনিট নাগাত পতাকা উত্তোলন, প্রদিপ প্রজ্জলন, জাতীয় সংগীত ও উদবোধনী বক্তব্যের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের শুভ সূচনা করেন জেলা পরিষদের পুর্ত কর্মাধ্যক্ষা শ্রীমতী সুনন্দা বিশ্বাস। বাৎসরিক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে এদিন নাচ, গান, আবৃত্তি সহ বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেন বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীরা। অনুষ্ঠান শেষে বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় স্থানাধিকারী ছাত্র-ছাত্রী দের মধ্যে পুরস্কার বিতরন করা হয়। পাশাপাশি বহিরাগত শিল্পিদের দ্বারা মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। মঞ্চে উপস্থিত বিশিষ্ট জনেরা তাদের মূল্যবান বক্তব্য তুলে ধরার পাশাপাশি এইরূপ সুন্দর অনুষ্ঠানের আয়োজন জন্য আনুষ্ঠানের আয়োজক উৎসব কমিটিকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। এবিষয়ে নাহিট হাই স্কুলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক শ্রী শুভজিৎ মিশ্র জানান, পঠন পাঠনের পাশাপাশি এই রূপ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অংশ গ্রহন ছাএ-ছাএীদের পুরিপূর্ন সারবিক বিকাশ ঘটাতে বিশেষ ভাবে সাহায্য করবে। নাহিট হাই স্কুলের বাৎসরিক সাংস্কৃতিক ও পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে এদিন বিদ্যালয়ের পড়ুয়াদের মধ্যে প্রবল উৎসাহ এবং উদ্দিপনা লক্ষ্য করা যায়।

ছবিঃ দীপঙ্কর মিত্র (টী.এন.আই)

Facebook Comments
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!