ইসলামপুরে ১৪৪ ধারা না মেনে অবস্থান বিক্ষোভ, গ্রেপ্তার বিধায়ক

দীপঙ্কর দে (টি.এন.আই ইসলামপুর) । টি.এন.আই সম্পাদনা বালুরঘাট

বাংলাডেস্ক, টি.এন.আই, ইসলামপুর, ১৮ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৯: ইসলামপুর বাইপাসে জমিহারা কৃষক সহ বিধায়ক ভিক্টরকেও ১৪৪ ধারা উলঙ্ঘনের অভিযোগে সোমবার গ্রেপ্তার করলো ইসলামপুর থানার পুলিশ। বাইপাসে জমিহারাদের দাবী পূরণ না হওয়ায় গত বৃহস্পতিবার থেকে চাকুলিয়ার বিধায়ক ফরওয়ার্ড ব্লকের আলী ইমরান রমজ ওরফে ভিক্টরের নেতৃত্বে ইসলামপুর মহকুমা শাসকের দপ্তরের সামনে ধরনায় বসেছিল পাঁচ শতাধিক কৃষকরা। মহকুমা প্রশাসনের তরফে গত শনিবার ১৪৪ ধারা লাগানো হলেও বিক্ষোভকারীরা মহকুমা শাসকের দপ্তরের সামনে থেকে না সরায় এদিন প্রশাসনের নির্দেশে পুলিশ তাঁদের গ্রেপ্তার করলো। গ্রেপ্তার হয়েছেন চাকুলিয়ার বিধায়ক ফরওয়ার্ড ব্লকের আলী ইমরান রমজ ওরফে ভিক্টরও। গ্রেপ্তার হয়েছেন ব্লক কংগ্রেস সভাপতি হাজী মুজফ্ফর হোসেন।

জানা গিয়েছে, রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে ভাওতাবাজির অভিযোগ এনে বাইপাস প্রকল্পে জমিহারাদের ইসলামপুর মহকুমা শাসকের দপ্তরের সামনে অনির্দিষ্টকালের ধরনা বিক্ষোভ শুরু হয়েছিল। চাকুলিয়ার বিধায়ক ফরওয়ার্ড ব্লকের আলী ইমরান রমজ ওরফে ভিক্টরের নেতৃত্বে গত বৃহস্পতিবার থেকে শতাধিক জমিহারা পুরুষ মহিলা শিশুরা এমনকি গবাদী পশুও ধরনা বিক্ষোভে সামিল হয়। উল্লেখ্য, ইসলামপুর বাইপাস প্রকল্পে জমিহারাদের রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে গীতাঞ্জলি প্রকল্পে ঘর, ক্ষতিপূরণের অর্থ, পরিবার পিছু একজনের সরকারী চাকরী, সিভিক পুলিশের চাকরীর প্রতিশ্রুতিও দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু আজ পর্যন্ত কোনও প্রতিশ্রুতি পূরণ না হওয়ায় ইসলামপুর মহকুমা শাসকের দপ্তরের সামনে শতাধিক জমিহারারা অনির্দিষ্টকালের ধরনা বিক্ষোভে সামিল হয়। কিন্তু এবিষয়ে ইসলামপুরের মহকুমা শাসকের সাথে জমিহারারা দেখা করতে চাইলেও মহকুমা শাসক দেখা করেননি বলে অভিযোগ। ইসলামপুরের ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট অনামিত্র সোম বলেন, প্রশাসনের তরফে ১৪৪ ধারা রয়েছে। ধরনাকারীদের সরে যাওয়ার অনুরোধ করা হয়েছে কিন্তু ওনারা না মানায় তাঁদের গ্রেপ্তারের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। চাকুলিয়ার বিধায়ক ফরওয়ার্ড ব্লকের আলী ইমরান রমজ ওরফে ভিক্টর বলেন, রাজ্য সরকারের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কৃষকদের সাথে ভাওতাবাজি করেও এখন ঘরছাড়া জমিহারা কৃষকদের দেওয়া প্রতিশ্রুতি পালন না করে পুলিশ দিয়ে জেলে ঢোকাচ্ছে। পুলিশ কি করছে দেখবো তারপর আগামী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

ছবি: দীপঙ্কর দে (টি.এন.আই)

Facebook Comments
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!