অভিনব কায়দায় প্রতারনার: ঘটনার শিকার মালবাজারের বেশ কিছু ব্যাবসায়ী

সুপ্রিয় বসাক (টী.এন.আই) । টি.এন.আই সম্পাদনা শিলিগুড়ি

বাংলাডেস্ক, টী.এন.আই মালবাজার ৪ঠা ফেব্রুয়ারি ২০১৮: বিশ্বাসে মিলায় বস্তু তর্কে বহুদূর। এই বিশ্বাস করতে গিয়ে সহস্রাধিক টাকা খোয়ালেন একাধিক ব্যবসায়ী। এই অভিনব উপায়ে প্রতারণার অভিযোগ উঠল। ঘটনার শিকার মালবাজার মহকুমার ওদলাবাড়ি এলাকার কিছু ব্যাবসায়ী। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার রাতে।জানা গিয়েছে, এক ব্যাক্তি এদিন গাড়ি নিয়ে এসে বাজারে প্রথমে এক মাংসের দোকানে যায় এবং সেখানে  বিক্রেতাকে ২৫ কেজি মুরগির মাংস কাটতে বলে। বিক্রেতার সামনে কর্মব্যস্ততা দেখিয়ে ওই ব্যাক্তি মাংসের দোকানদার কে বলে, আমাকে ২০০০ টাকা দাও আমি সব্জি নিয়ে আসছি, ততক্ষনে তুমি মাংস কাটতে থাক।কথা মতো বিক্রেতা এই দোকানী টাকা দিয়ে দেয়। এরপর ওই ব্যাক্তি সবজি দোকেনে ৫০০০ টাকার সব্জি দরদাম করে বস্তাবন্দী করতে বলে সব্জির দোকানের মালিকের থেকে ১০০০ টাকা নেন মশলা নিয়ে আসার কথা বলেন।

এই ভাবে বিভিন্ন দোকান থেকে টাকা তুলে চম্পট দেয় ওই ব্যাক্তি। যে মারুতি করে এসেছিল সেই মারুতির চালকও ভাড়া পায়নি বলে অভিযোগ। প্রতারিত তিন ব্যবসায়ীরর নাম রাজা দে, প্রফুল্ল দেবনাথ ও উমেশ শা। প্রতারিত মাংস ব্যবসায়ী রাজা দে বলেন, “বাজারে লোকজন কম ছিল। এমন সময় সামরিক পোশাকে সুসজ্জিত এক ব্যাক্তি একট গাড়ি থেকে নেমে আমার দোকানে আসেন। মুরগির মাংস দরদাম করেন। দর দাম হবার পর ২৫ কেজি মাংস অর্ডার দেয়। আমি মাংস কাটতে শুরু করি। এরপর ওই ব্যাক্তি মাছের দোকানে যায়। খানিক এসে আমার কাছে ২০০০ টাকার ভাংগানি চায়”। আমি ৪ টি ৫০০ টাকার নোট তার হাতে দেই। খানিক বাদে আসছি বলে চলে যায়। আমি ভাবলাম হয়তো একসাথে দেবে। গাড়ি চালক জানায়, তাকে ভাড়া করে এনে ভাড়া দেয় নি। লোকটি অনেক খুজে না পেয়ে ব্যবসায়ীরা থানায় জানায়। এরকমভাবে প্রতারণার ঘটনায় বাজারে চাঞ্চল্য ছড়ায়।

ছবিঃ সুপ্রিয় বসাক (টী.এন.আই)

Facebook Comments
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!