চ্যাংরাবান্দায় বিদ্যালয়ে পড়ুয়া ফেরাতে বিশেষ সভা প্রধান শিক্ষিকা এবং বিদ্যালয় পরিদর্শকের

স্বপন রায় বীর (টী.এন.আই মেখলীগঞ্জ) । টি.এন.আই সম্পাদনা শিলিগুড়ি

বাংলাডেস্ক, টী.এন.আই চ্যাংরাবান্দা ১০ই জানুয়ারি ২০১৮: বিদ্যালয়ে নবাগত ছাত্রীর নূতূন শিক্ষাবর্ষে ভর্তির জন্য বিশেষ কর্মসূচি ও উদ্যোগ নিলেন প্রধান শিক্ষিকা এবং স্কুল পরিদর্শক৷ জানা যায় বেশ কয়েক বছর ধরে নবনির্মিত কোচবিহার জেলার মেখলিগঞ্জ ব্লকের চ্যাংরাবান্দা জুনিয়র গার্লস স্কুলের পড়ুয়ার অভাবে সমস্যায় পড়েছে৷ তাই নূতূন শিক্ষাবর্ষে পড়ুয়াদের ভর্তির উদ্যোগ নিলেন স্কুলপরিদর্শক এবং ওই স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা সহ প্রতিবেশী বিদ্যালয়গুলি৷ মেখলিগঞ্জ এর বিদ্যালয় পরিদর্শক মহাশয়া লীলা লাখরা, বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষিকা সুপর্না সরকার এবং এ আই অনিমেষ দেবনাথের ডাকে একটি বিশেষ আলোচনা সভা ডাকা হয়৷ আমন্ত্রন করা হয় পার্শবর্তী চ্যাংরাবান্দার অভিভাবক ও অভিভাবকাদের এবং সংলগ্ন চ্যাংরাবান্দা হাই স্কুল এর প্রধান শিক্ষিকা সহ বেশ কয়েকটি স্কুল প্রধানকে৷ এই আলোচনা সভার মুখ্য উদ্যেশ্য ছিল – নুতুন শিক্ষাবর্ষে পড়ুয়াদের ভর্তি বিষয়ে গুরূত্বপূর্ণ আলোচনা৷ এই সভায় এলাকার বেশ  কয়েকজন অভিভাবক অংশগ্রহণ করেন৷ জানা যায় দির্ঘ দিন যাবত ওই বিদ্যালয়ে পরিকাঠামোগত সমস্যার কারনে এলাকার অভিভাবকরা ছাত্রীদের ভর্তির বিষয়ে অনীহা প্রকাশ করেন৷ তাছাড়া মাত্র দুইশ মিটার দূরে সুনাম অর্জন কারী চ্যাংরাবান্দা হাই স্কুল থাকায় এই স্কুলেই অভিভাবকরা তাদের ছেলে – মেয়ে দের পড়াতে বেশী আগ্রহী৷ অন্যদিকে, এক বিশেষ সূত্র থেকে জানা যায় – পার্শবর্তী কয়েকটি প্রাইমারী বিদ্যালয়ের প্রধানরা ওনাদের চতুর্থ শ্রেনীর ছাত্রীদের গার্লস স্কুলে ভর্তির বিষয়ে আগ্রহ দেখান না, ফলে বড়  চাঙ্গারাবান্ধা হাইস্কুলে ছাত্রী ভর্তির হিড়িক পরে যায়৷ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা সুপর্না সরকার জানান – বিদ্যালয়ের পরিকাঠামোগত আগে সমস্যা ছিল, এখন অনেকটা সমস্যা সমাধান হয়েছে৷ এর মধ্যই পঠন – পাঠনে বিশেষ জোর দেওয়া হচ্ছে৷ আমরা চাই অভিভাবকরা ওনাদের সন্তানদের ওই স্কুলে ভর্তি করাক৷ অন্যদিকে, জানা যায় চলতি শিক্ষাবর্ষে ছাত্রী ভর্তির জন্য এলাকাবাসি আগ্রহী হবেন এবং ওনাদের মেয়েদের ওই বিদ্যালয়ে ভর্তি করাবেন৷

ছবিঃ স্বপন রায় বীর (টী.এন.আই)

Facebook Comments
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!