সভাপতির ফতোয়াকে উপেক্ষা করে ইসলামপুরে জয়ী নির্দল প্রার্থীর ফের তৃনমূলে যোগদান

দীপঙ্কর দে (টী.এন.আই ইসলামপুর) । টি.এন.আই সম্পাদনা শিলিগুড়ি

বাংলাডেস্ক, টী.এন.আই, ইসলামপুর, ১৮ই মে, ২০১৮: গণনাপর্ব সাঙ্গ হতেই জেলা সভাপতির ফতোয়াকে উপেক্ষা করে ইসলামপুরে জয়ী নির্দল প্রার্থী রূপে বিক্ষুব্ধ তৃণমূলীদের দলে ফেরানোর হিড়িক পড়ে গিয়েছে। পাশাপাশি দলের প্রার্থীদের সমর্থন না করা বিক্ষুব্ধদের বিরুদ্ধে জেলা নেতৃত্ব ব্যবস্থা নিতে চলেছে। জানা গিয়েছে, শনিবার ইসলামপুরের দলীয় কার্যালয়ে মাটিকুন্দা – ২ ও পন্ডিতপোতা – ২ গ্রাম পঞ্চায়েতের ৩টি করে ৬টি জয়ী নির্দল প্রার্থী তৃণমূলে যোগদান করেন। ইসলামপুর ব্লক তৃণমূল সভাপতি জাকির হোসেন ও টাউন তৃণমূল যুব সভাপতি কৌশিক গুণের উপস্থিতিতে তাঁদের হাত থেকে দলীয় পতাকা নিয়ে জয়ী নির্দল প্রার্থীরা ফের দলে যোগদান করেন। জয়ী নির্দল প্রার্থীরা জানিয়েছেন, তাঁরা দল থেকে টিকিট না পেয়ে নির্দল প্রার্থী হয়ে দলেরই প্রতীক পাওয়া প্রার্থীদের হারিয়ে ফের দলে যোগদান করলেন। এনিয়ে প্রতীক পাওয়া প্রার্থীদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। হেরে যাওয়া প্রতীক পাওয়া প্রার্থীরা বলছেন, তাঁদের হারের পেছনে অন্তর্ঘাত বড়ো কারন। উল্লেখ্য, মাতিকুন্দা – ২ গ্রাম পঞ্চায়েতে ১৫টি আসনের মধ্যে তৃণমূল ও বিজেপি ৬টি করে আসন পায় নির্দল প্রার্থীরা ৩টি আসনে জেতে। আজকে ৩জন নির্দল প্রার্থী তৃণমূলে যোগদান করায় মাটিকুন্দা – ২ গ্রাম পঞ্চায়েতে তৃণমূলের আসন সংখ্যা দাঁড়ালো ৯টি। অপরদিকে পন্ডিতপোতা – ২ গ্রাম পঞ্চায়েতের ১৪টি আসনের মধ্যে তৃণমূল ও বিজেপি ৫টি করে আসন পায় এবং ৪টি আসন নির্দল প্রার্থীরা দখল করে। আজকে ৩জন নির্দল প্রার্থী তৃণমূলে যোগদান করায় পন্ডিতপোতা – ২ গ্রাম পঞ্চায়েতে ৮টি আসন দখল করলো তৃণমূল। ইসলামপুর ব্লক তৃণমূল সভাপতি জাকির হোসেন বলেন, সবাইকে টিকিট দেওয়া সম্ভব হয়নি। মানুষ যাদেরকে তাঁদের মত দিয়েছেন তাঁরা তৃণমূলেরই ছিলেন। নির্দল হয়ে নির্বাচন লড়ে এখন তাঁরা আবার দলে ফিরে এসেছেন। তাঁদেরকে আমরা কি করে ফিরিয়ে দেই। উত্তর দিনাজপুরের তৃণমূল জেলা সভাপতি অমল আচার্য্যকে ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, দলের নির্দেশ না মেনে নির্দল প্রার্থী হয়ে যারা দলের প্রার্থীদের হারিয়েছেন তাঁদের বিরুদ্ধে সব ব্যবস্থা নেওয়া হবে

ছবিঃ দীপঙ্কর দে (টী.এন.আই)

Facebook Comments
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!