সাহায্য চাই আবেদন ময়নাগুরির কল্পনা রায়ের পরিবারের

সোমনাথ চক্রবর্তী (টী.এন.আই ময়নাগুড়ি) । টি.এন.আই সম্পাদনা শিলিগুড়ি

বাংলাডেস্ক, টী.এন.আই ময়নাগুরি ১৪ই এপ্রিল, ২০১৮: বাবা মৃত চেকা রায় মাতা মৃত মালতি রায়। বাড়ি ময়নাগুড়ি ব্লকের মধ্যখাগড়াবাড়ি এলাকায়। উল্লেক্ষ্য আজ থেকে প্রায় ১৮ বছর আগে হঠাৎ মস্তিষ্কজাত অসুখে অসুস্থ হয়ে পড়ে কল্পনা রায়। বাবা মা পরলোক গমন করায় তার দেখাশুনায় খুবই অসুবিধার মধ্যে পড়ে তার মামা ললিত রায়। এরপর কল্পনা রায়ের দিদি জ্যোৎস্না রায় দেবনাথ তার বোনকে স্বামীর বাড়িতে নিয়ে আসে। জ্যোৎস্না রায়ের স্বামী কমল দেবনাথ পেশায় দিনমজুর। তা সত্ত্বেও তার শ্যলিকার চিকিৎসার জন্য যথাসাধ্য চেষ্টা করেছিলেন। এই চিকিৎসা করতে এখন সর্বশান্ত কমল বাবু। জ্যোৎস্না দেবনাথ বলেন আমার বোন কল্পনা রায় (৩২) একসময় কাজকর্মে খুব পটু ছিলেন। কিন্তু হঠাৎ মস্তিষ্কজনিত অসুখে আজ তার বোন সমাজের চোখে ভবঘুরে। ভালো মন্দ জ্ঞ্যান টুকুও নেই। কল্পনা রায়ের মামা বলেন মস্তিষ্ক বিভ্রাটের কারনে প্রায়ই রাস্তা দিয়ে চলাচল লোকজনের সাথে বচসা লেগেই থাকে। তার উপর কল্পনা রায়ের চিকিৎসা করবার জন্য প্রচুর অর্থের প্রয়োজন। এই পরিস্থিতিতে ডাক্তার বলেছেন সঠিক চিকিৎসা হলে কল্পনা রায় আবার সুস্থ জীবন যাপন করতে পারবে।কিন্তু চিকিৎসা চালানোর জন্য সেরকম অর্থ নেই।তাই কেউ যদি একটু সাহায্য এর জন্য কেউ যদি এগিয়ে আসে তাহলে কল্পনা রায় আবার সুস্থ সমাজে ফিরে আসবে। দরিদ্র এই অসহায় পরিবারের জন্য ময়নাগুরির স্বামী বিবেকানন্দ ওয়েল ফেয়ার এসোসিয়েশন এগিয়ে এসেছে। এই এসোসিয়েশনের সম্পাদক রবিউল ইসলাম বলেন আরো অনেক মানুষকে এগিয়ে আসতে হবে যাতে করে কল্পনা রায় সুস্থ সমাজে ফিরে আসে।

ছবিঃ সোমনাথ চক্রবর্তী (টি.এন.আই)

Facebook Comments
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!