অবৈধ কয়লা ব্যবসায় জড়িত থাকার অভিযোগে গ্রেফতার চোপরার বিজেপি নেতা

দীপঙ্কর দে (টী.এন.আই ইসলামপুর) । টি.এন.আই সম্পাদনা শিলিগুড়ি

বাংলাডেস্ক, টী.এন.আই চোপড়া ৮ই ফেব্রুয়ারি ২০১৮: বৃহস্পতিবার অবৈধ কয়লা ব্যবসায় জড়িত থাকার অভিযোগে গ্রেফতার হলেন চোপড়ার বিজেপি নেতা শাহীন আখতার। আইন শৃঙ্খলার অবনতির আশঙ্কায় তাকে গ্রেফতার করে ইসলামপুর থানায় নিয়ে আসা হয়। এই ঘটনায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে জেলার রাজনৈতিক মহলে। শাহীন আখতার বলেন, আমার নাম আদৌ এফ.আই.আর এ নেই। রাজনৈতিক উদ্দেশ্য চরিতার্থ করার জন্য পরিকল্পিতভাবে শাসক দলের নেতারা আমার বিরুদ্ধে এই ধরনের ষড়যন্ত্র করছে। আমি জমির লিজ দিয়েছি মাত্র। কিন্তু সেখানে ওই ব্যবসার সঙ্গে আদৌ আমার কোনও সম্পর্ক নেই। তাছাড়া কোনও পরীক্ষা ছাড়াই পুলিশ কিভাবে বলতে পারে সেখানে জাল কয়লা আছে। তাছাড়া আমাকে গ্রেপ্তারের আগে ৪১সি আর পি সি নোটিশও দেয়নি পুলিশ। যদিও চোপড়ার তৃণমূল বিধায়ক হামিদুল রহমান বলেন, আগে শাহীন আখতার তৃণমূল কংগ্রেসে থেকে জমির দালাল ছিল। এখন বিজেপিতে গিয়ে কয়লার মাফিয়া হয়েছে। জেলা পুলিশ সুপার শ্যাম সিং বলেন, অবৈধ কয়লার ব্যবসায় যুক্ত থাকার অভিযোগে শাহীন আক্তারকে গ্রেফতার করা হয়েছে। শুক্রবার তাকে কোর্টে পাঠানো হবে।অন্যদিকে বিজেপির জেলা সাধারণ সম্পাদক সুরজিৎ সেন বলেন, আমাদের দলের চোপড়ার নেতা শাহিন আখতার তাঁর পাম্পের পাশে একটি জমি তিনি লিজ দিয়েছেন। সেখানে অন্য কেউ কয়লার ব্যবসা করছে। ওই ব্যবসাতে শাহীনের নাম জড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। আসলে শাহীন আখতার বর্তমানে তৃণমূলের মাথা ব্যাথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে তাই বারবার মিথ্যা মামলায় শাহিনকে জেলে ঢোকানো হচ্ছে এটা আমরা বরদাস্ত করবো না। পুলিশ ও প্রশাসনকে সময়মতো মানুষ জবাব দেবে। উল্লেখ, চলতি সপ্তাহের গত সোমবার অবৈধ কয়লা ব্যবসায় জড়িত থাকায় আটজনকে গ্রেপ্তার করে চোপড়া থানার পুলিশ। পাশাপাশি দলুয়া এলাকায় বিজেপি নেতা শাহিন আখতারের পেট্রোল পাম্প লাগোয়া জমি ছাড়াও চোপড়ার মিরধাগছ, সুভাষনগর সহ বিভিন্ন জায়গায় অবৈধ কয়লা কারবার চলছে বলে জানা গিয়েছে।

ছবিঃ দীপঙ্কর দে (টী.এন.আই)

Facebook Comments
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!