চাঁদা মামলায় জামিন পেলেন মেখলিগঞ্জের সাংবাদিক দীপেন রায়

স্বপন রায় বীর (টী.এন.আই মেখলীগঞ্জ) । টি.এন.আই সম্পাদনা শিলিগুড়ি

বাংলাডেস্ক, টী.এন.আই মেখলীগঞ্জ ৬ই জানুয়ারি ২০১৮: খবর সংগ্রহে বাঁধা, পাল্টা মার সাংবাদিক কে, এরূপ হেনস্তাকৃত সাংবাদিক যখন থানায় অভিযোগ জানান তখন দায় এড়াতে পাল্টা অভিযোগ করেন শুল্ক বিভাগের আধিকারিক৷ এমন ঘটনায় আজ নির্দোষ প্রমানিত হয়ে জামিন পেলেন কোচবিহার জেলার মেখলিগঞ্জের সাংবাদিক দিপেন রায়৷ উল্লেখ্য যে মেখলিগঞ্জের ভারত – বাঙ্গলাদেশ আন্তজর্তীক বাণিজ্য কেন্দ্র চাঙ্গারাবান্ধা শুল্ক বিভাগে গত নভেম্বর মাসে খবর সংগ্রহ করতে গিয়ে কাস্টমস অফিসারের হাতে নিগৃহীত হয় সাংবাদিক দীপেন রায়।ওইদিন কাস্টমস অফিসারের ফেয়ারওয়েল পার্টিতে মদের আসর করার ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ফেসবুক এ ভাইরাল হয়। সেই ছবিকে কেন্দ্র করে কাস্টমস অফিসে তথ্য সংগ্রহে সাংবাদিক দীপেন রায় গেলে কাস্টমস অফিসার সাহায্যের বদলে চড়াও হয়। জানা যায় কাস্টম বা শুল্ক আধিকারিকরা তেমন কিছূ না বুঝে শাল কাঠের বাটাম দিয়ে বেধকর মারধোর করে সাংবাদিককেও। পাশে থাকা কয়েক জন কোন মতে চ্যাংড়াবান্ধা হাসপাতালয়ে নিয়ে যায় নিগৃহীত সাংবাদিককে। তার অবস্থা খারাপ হওয়ায় প্রথমে মেখলীগঞ্জ মহকুমা হাসপাতাল এবং মেখলীগঞ্জ থেকে জলপাইগুড়ি সদর হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়।তিন দিন পর সুস্থ হয়ে বাড়ী আসে। এঁরপর কাস্টমস অফিসারের নামে মেখলীগঞ্জ থানায় অভিযোগ জানায়। অন্যদিকে, কাস্টমস অভিসার পালটা অভিযোগ করে দীপেন রায়ের বিরুদ্ধে চাঁদার জুলুমবাজির নামে। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে দীপেন রায় মেখলীগঞ্জ মহকুমা কোর্টে জামিনের আবেদন করে। মেখলীগঞ্জ মহকুমা কোর্টের বিচারপতি শ্রী প্রদীপ কুমার অধিকারী জামিন মঞ্জুর করে। এনিয়ে, দীপেন রায় সংবাদ মধ্যম কে জানান, “জামিন পেয়ে আমি খুশী। আদালতে বিচারাধীন থাকায় এনিয়ে মন্তব্য করবো না। তবে আমি সেদিন খবর সংগ্রহ করতে গিয়েছিলাম। যে পূজার চাঁদার কথা বলেছে কাস্টমস অফিসার সেটার সদস্যই না আমি। আমি চাই আমাকে যে মেরেছে তার শাস্তি হোক।

ফাইল ছবি

Facebook Comments
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!