‘গণেশ ঠাকুরের’ থেকে হামাগুড়ি দিয়ে বাঁচলেন বয়স ৭০রের বৃদ্ধা

সুপ্রিয় বসাক (টী.এন.আই ধুপগুড়ি) । টি.এন.আই সম্পাদনা শিলিগুড়ি

বাংলাডেস্ক, টী.এন.আই, ৩১শে ডিসেম্বর ২০১৭: বয়স ৭০ হলেও, শিশু বয়েসে শেখা হামাগুড়ির দৌলতে প্রান বাঁচল। পৌঢ় বয়সে শিশু বয়সের পদ্ধতি প্রান বাঁচাল ৭০ বছরের বৃদ্ধা শ্রীমতী বাসনা নাথের। ঘটনাটি ঘটেছে আজ গতকাল ভোর রাতের দিকে বন্ধ রেড ব্যাংক চা বাগানের ৪ নং স্টাফ লাইন এলাকায়। হাতির হানায় ঘুমন্ত বৃদ্ধার মাথার কাছেই ভেঙে পড়ল ঘরের দেওয়াল সহ জানালা। দেওয়াল ও জানালা ভেঙে পড়ার শব্দে ঘুম ভেঙে যাওয়ার পর চোখ মেলে দেখেন মাথার কাছে জানালার ভাঙা অংশ দিয়ে শুঁড় ঢুকিয়ে ঘরে মজুত রাখা চাল খেয়ে সাবার করছেন গণেশ ঠাকুর (হাতি)।

বেশ কিছুক্ষণ দিশেহারা অবস্থায় থাকার পরে অবশেষে হামাগুরি দিয়ে কোনমতে বাইরে বেড়িয়ে আসেন এই বৃদ্ধা। ঘটনার পর বেশ কিছুক্ষন সময় পেরিয়ে গেলেও এখনো পুরোপুরি আতঙ্ক মুক্ত হতে পারেনি বাসনা দেবী। বৃদ্ধার ছেলে শ্রী ধনেশ নাথ টি.এন.আই কে জানান – ভোর রাতের দিয়ে শ্রমিক মহল্লায় ঢুকে একটা মুদি দোকান লন্ডভন্ড করে বৃদ্ধার বাড়িতে হানা দেয় গজরাজ। খবরের প্রকাশ বাগানের আরও কয়েকটি বাড়িতে হানা দেয় হাতিটি, এরপর ফ্যাক্টরির দেওয়ালের একাংশও ভাঙে গজপতি। সব মিলিয়ে রেড ব্যাংক চা বাগানে এখন গজ-আতঙ্কের ছায়া।

ছবিঃ সুপ্রিয় বসাক (টী.এন.আই)

Facebook Comments
Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!